শুক্রবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৭

সূচিপত্র

ধর্মকারীর উদ্যোগে যাত্রা শুরু করছে নতুন এই ব্লগ: কুফর-e-কিতাব। তবে এটাকে ব্লগ না বলে ক্রমবর্ধমান আর্কাইভ বলাটাই সঙ্গত হবে।

অনলাইনে লভ্য ধর্মসমালোচনামূলক সমস্ত বাংলা ইবুক ও ডিজিটাল বইয়ের প্রাপ্তিস্থল হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে ধর্মকারীর এই অঙ্গ-ব্লগ। নিচের তালিকায় উল্লেখ করা হয়নি, এমন আরও বই নিশ্চয়ই আছে। সেসবের সন্ধান জানানোর অনুরোধ রইলো dhormockeryঅ্যাটgmailডটcom ঠিকানায়। ব্যক্তিগত উদ্যোগে বানানো কুফরী কিতাবও স্থান পেতে পারে এই তালিকায়। এই ধারার জনপ্রিয় ও প্রয়োজনীয় ইংরেজি বইগুলোও যোগ করা হবে ক্রমশ।

শুধুমাত্র প্রচার ছাড়া কোনও ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ বা উদ্দেশ্য আমাদের নেই। তবু কপিরাইট বিষয়ক বা অন্য কোনও যুক্তিযুক্ত অভিযোগ পেলে যে কোনও বই আমরা সরিয়ে নেবো।

কুফর-e-কিতাবের তালিকা ও ডাউনলোড লিংক


ধর্মকারী প্রকাশিত

১. হজরত মহাউন্মাদ ও কোরান-হাদিস রঙ্গ
২. নিলয় নীল: ইসলামী শস্যক্ষেত্র
৩. নিলয় নীল: সনাতনী কামিনী
৪. কামুক (তিনটি কমিক এক খণ্ডে)
৫. Mockerof Islam: ছহি ইছলামী বিজ্ঞাপর্ন
৬. তামান্না ঝুমু: নিঃসীম নূরানী অন্ধকারে
৭. আবুল কাশেম: ইসলামে কাম ও কামকেলি
৮. থাবা বাবা: থাবার থাবড়া
৯. ওয়ালিদ আল হুসেইনি: ঈশ্বরদের জন্মকথা
১০. নবী মোর দয়ার খনি (কমিক)
১১. দাঁড়িপাল্লা ধমাধম: মহা-ম্যাডের গাধা
১২. নিলয় নীল: বৌদ্ধশাস্ত্রে পিতৃতন্ত্র - নারীরা হল উন্মুক্ত মলের মতো দুর্গন্ধযুক্ত
১৩. ওয়াশিকুর বাবু: নাস্তিকদের কটূক্তির দাঁতভাঙা জবাব
১৪. গোলাপ মাহমুদ: ইসলামের অজানা অধ্যায় (প্রথম খণ্ড - কুরানে বিগ্যান ও ইসলাম: উদ্ভট উটের পিঠে)
১৫. গোলাপ মাহমুদ: ইসলামের অজানা অধ্যায় (দ্বিতীয় খণ্ড - মুহাম্মদের ব্যক্তিমানস জীবনী: মদিনায় মুহাম্মদ - এক)
১৬. নিলয় নীল: নির্বাচিত নিবন্ধ
১৭. নরসুন্দর মানুষ: জঙ্গিনামা - ১
১৮. গোলাপ মাহমুদ: ইসলামের অজানা অধ্যায় (তৃতীয় খণ্ড - মুহাম্মদের ব্যক্তিমানস জীবনী: মদিনায় মুহাম্মদ - দুই)
১৯. ওয়ালিদ আল হুসেইনি: ঈশ্বরদের জন্মকথা (দ্বিতীয় প্রকাশ)
২০. আবুল কাশেম: ইসলামে নারী এবং যৌনতা (দ্বিতীয় প্রকাশ)
২১. নরসুন্দর মানুষ: জঙ্গিনামা - ২
২২. নরসুন্দর মানুষ: কোরানে বৈপরীত্য
২৩. আবুল কাশেম: ইসলামি পাটিগণিত
২৪. আরজ আলী মাতুব্বর - সত্যের সন্ধান
২৫. জুপিটার জয়প্রকাশ - নান্টু ঘটক ও কাছিম কাহিনী
২৬. আবুল কাশেম: ইসলামে বর্বরতা - নারী অধ্যায়
২৭. নরসুন্দর মানুষ: জঙ্গিনামা - ৩
২৮. নরসুন্দর মানুষ: কোরানে জিহাদ ও আক্রমণের আহ্বান
২৯. থাবা বাবা: থাবার থাবড়া (দ্বিতীয় সংস্করণ)
৩০. আবুল কাশেম: উম হানি ও মুহাম্মদ (ইসলামের মহানবীর প্রথম ভালবাসা)
৩১. গোলাপ মাহমুদ: ইসলামের অজানা অধ্যায় (চতুর্থ খণ্ড - মুহাম্মদের ব্যক্তিমানস জীবনী: মদিনায় মুহাম্মদ - তিন)
৩২. আরজ আলী মাতুব্বর: অনুমান
৩৩. ওয়াশিকুর বাবু: অ-বিষ-শ্বাসী ধর্মবিদ-দেশী
৩৪. জুপিটার জয়প্রকাশ: রঙ্গিলা রসুল


অন্যান্য ব্লগে প্রকাশিত

মুক্তমনা

১. অভিজিৎ রায় ও রায়হান আবীর: অবিশ্বাসের দর্শন
২. অভিজিৎ রায়: বিশ্বাসের ভাইরাস
৩. মীজান রহমান ও অভিজিৎ রায়: শূন্য থেকে মহাবিশ্ব (উৎপত্তি এব অস্তিত্বের সাম্প্রতিকতম ধারণা)
৪. বন্যা আহমেদ: বিবর্তনের পথ ধরে
৫. অভিজিৎ রায়: আলো হাতে চলিয়াছে আঁধারের যাত্রী
৬. অভিজিৎ রায়: সমকামিতা - একটি বৈজ্ঞানিক এবং সমাজ-মনস্তাত্ত্বিক অনুসন্ধান
৭. বিজ্ঞান ও ধর্ম  - সংঘাত নাকি সমন্বয়? (নিবন্ধ সংকলন)
৮. আকাশ মালিক: যে সত্য বলা হয়নি
৯. হাসান মাহমুদ: ইসলাম ও শারিয়া
১০. অভিজিৎ রায়: ভালোবাসা কারে কয়
১১. ওয়াশিকুর বাবু: ফাল দিয়া ওঠা কথা


জীবনের বিজ্ঞান: ব্লগ
(বঙ্গানুবাদ, তবে ইবুক নয়, ব্লগে পড়তে হবে)

১. রিচার্ড ডকিন্স: দি গড ডিল্যুশন
২. রিচার্ড ডকিন্স: দি গ্রেটেষ্ট শো অন আর্থ
৩. জেরী কয়েন: হোয়াই ইভোল্যুশন ইজ ট্রু


ইস্টিশন

১. আকাশ মালিক: আমার না বলা কিছু কথা


মুক্তবই:

১. ইমতিয়াজ আহমেদ: বৈজ্ঞানিক অপব্যখ্যা ও খন্ডন

নেট থেকে সংগৃহীত

১. আরজ আলী মাতুব্বর: রচনাসমগ্র ১
২. আরজ আলী মাতুব্বর: রচনাসমগ্র ২
৩. আরজ আলী মাতুব্বর: রচনাসমগ্র ৩
৪. হুমায়ুন আজাদ: আমার অবিশ্বাস
৫. হুমায়ুন আজাদ: মহাবিশ্ব
৬. হুমায়ুন আজাদ: শুভব্রত তার সম্পর্কিত সুসমাচার
৭. প্রবীর ঘোষ: অলৌকিক নয়, লৌকিক - ১
৮. প্রবীর ঘোষ: অলৌকিক নয়, লৌকিক - ২
৯. প্রবীর ঘোষ: অলৌকিক নয়, লৌকিক - ৩
১০. প্রবীর ঘোষ: অলৌকিক নয়, লৌকিক - ৪
১১. প্রবীর ঘোষ: আমি কেন ঈশ্বরে বিশ্বাস করি না
১২. বার্ট্রান্ড রাসেল: রচনাসমগ্র ১
১৩. কার্ল সেগান: কসমস (প্রথম খণ্ড)
১৪. কার্ল সেগান: কসমস (দ্বিতীয় খণ্ড)
১৫. ভবানীপ্রসাদ সাহু: ধর্মের উৎস সন্ধানে
১৬. দুই বাংলার যুক্তিবাদীদের চোখে ধর্ম
১৭. সুরজিত দাশগুপ্ত: ভারতবর্ষ ও ইসলাম
১৮. চার্লস ডারউইন: আত্মচরিত
১৯. তেহমিন্ দুররানি: ব্লাসফেমি
২০. শেখ আবদুল হাকিম: হাইপেশিয়া
২১. ইসলাম বিতর্ক (অনুবাদ সংকলন): সম্পাদনা - শামসুজ্জোহা মানিক
২২. কঙ্কর সিংহ: ইসলাম ও নারী
২৩. এম. এ. খান: জিহাদ - জবরদস্তিমূলক ধর্মান্তরকরণ, সাম্রাজ্যবাদ ও দাসত্বের উত্তরাধিকার
২৪. ভগৎ সিং: কেন আমি নাস্তিক
২৫. অনির্বাণ বন্দ্যোপাধ্যায়: লিঙ্গপুরাণ
২৬. খোন্দকার রেয়াযউদদিন আহমদ: মানুষ হলাম কি করে
২৭. ভবানী প্রসাদ সাহু: মানব সন্তান ঈশ্বর ও অন্যান্য প্রসঙ্গ
২৮. আজিজুল হক: মনু মহম্মদ হিটলার
২৯. গোলাম মুরশিদ: নারী ধর্ম ইত্যাদি
৩০. সাযযাদ কাদির: হারেমের কাহিনী (জীবন ও যৌনতা)
৩১. মানবতা-বিজ্ঞান-দর্শন ও শান্তির ধর্ম ইসলাম (রচনা সংকলন)
৩২. স্টিফেন হকিং: কালের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস (A Brief History of Time)
৩৩. স্টিফেন হকিং: দ্য গ্র্যান্ড ডিজাইন (The Grand Design)
৩৪. এম. কে. এ. আহমেদ: কোরআনের বর্ণনায় সমতল পৃথিবী (প্রথম খণ্ড)
৩৫. সৈয়দ শাহজাহান: ধর্ম ও নারী
৩৬. আলি দস্তি: নবি মুহাম্মদের ২৩ বছর (আবুল কাশেম ও সৈকত চৌধুরী অনূদিত)
৩৭. নাস্তিকপিডিয়া (প্রথম খণ্ড - ধর্মের উৎপত্তি, নাস্তিকতা ও ধর্মে অবিশ্বাষ, ইসলামের সমালোচনা কেন করা হয় এবং আল্লাহ বা ঈশ্বরের পরিচয়)
৩৮. নাস্তিকপিডিয়া (দ্বিতীয় খণ্ড - মোহাম্মদ পুরাণ: মোহাম্মদ এর আসল জীবনী কোরআন হাদীসের রেফারেন্স সহ)
৩৯. নাস্তিকপিডিয়া (তৃতীয় খণ্ড - মহা ব্যাঙানিক কোরআন: কোরআনের ব্যবচ্ছেদ)
৪০. ডঃ অতুল সুর: দেবলোকের যৌনজীবন
৪১. শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলাম ও আধুনিক সভ্যতা
৪২. শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলামের ভূমিকা ও সমাজ উন্নয়নের সমস্যা
৪৩. শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলামে নারীর অবস্থা



জুপিটার জয়প্রকাশ: রঙ্গিলা রসুল

সম্পূর্ণ ছহীহ ও ইছলামী দৃষ্টিকোণ থেকে নির্ভরযোগ্য তথ্যসূত্র ও দলিল থেকে নবীর জীবন, তার কর্মকাণ্ড বা ইছলামের ইতিহাস সম্পর্কিত উদ্ধৃতি দিলেও ঈমান্দার মুছলিম ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে - এই প্রবণতাটি কিন্তু সাম্প্রতিক নয়। বস্তুত এটাই ইছলামী ঐতিহ্য। শুধু তা-ই নয়, শুধু শোনা কথার ওপর ভিত্তি করে (সত্যতা যাচাইয়ের স্বভাব বিশ্বাসীদের নেই) উন্মত্ত সহিংসতায় ঝাাঁপিয়ে পড়াটাও তাদের ঈমানী বৈশিষ্ট্য।

অখণ্ড ভারতবর্ষে ১৯২০-এর দশকের প্রারম্ভে পাঞ্জাবের মুসলিমরা একটি পুস্তিকা প্রকাশ করে। সেটিতে হিন্দুদের দেবী সীতাকে পতিতা হিসেবে চিত্রিত করা হয়। এবং কথিত আছে, এর প্রতিশোধ নিতেই হিন্দু পণ্ডিত চমূপতি "রঙ্গিলা রসুল" নামে একটি সত্য তথ্য সম্বলিত ব্যঙ্গাত্মক পুস্তিকা লেখেন, যা ১৯২৩ সালে প্রকাশ করেন লাহোরের প্রকাশক রাজপাল। বইটির শেষে উল্লেখ করাও আছে: "এই পুস্তকে যে সমস্ত রেফারেন্স ব্যবহার করা হইয়াছে, তাহা কেবল সুন্নী দলিল হইতে গৃহীত।"

এর পরে ইলমুদ্দিন নামের মর্দে মুছলিম রাজপালকে হত্যা করে।

"রঙ্গিলা রসুল" নামের পুস্তিকাটিকে অখণ্ড ভারতবর্ষের প্রথম নিষিদ্ধ বই হিসেবে গণ্য করা হয়। সেই বইটিকে মূল হিন্দি থেকে বাংলায় অনুবাদ করেছেন সুরসিক ও সুলেখক জুপিটার জয়প্রকাশ। মূল বইয়ের চরিত্র ও স্বাদ অটুট রাখতে অনুবাদক ব্যবহার করেছেন সাধু বাংলা ভাষা, যা নিশ্চিতভাবেই অত্যন্ত উপযুক্ত ও উপাদেয় হয়েছে।

আর ইবুকটি নির্মাণের সার্বিক কৃতিত্ব সকল কাজের কাজী নরসুন্দর মানুষ-এর।

ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
সাইজ: ১.১৮ মেগাবাইট
ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ)
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স)

অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শনও এমবেড করা হলো নিচে:

বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ, ২০১৭

ওয়াশিকুর বাবু: অ-বিষ-শ্বাসী ধর্মবিদ-দেশী

এতো অল্প বয়সেই পরিপক্ক স্বচ্ছ চিন্তা, স্পষ্ট শাণিত যুক্তি ও বুদ্ধিদীপ্ত প্রকাশভঙ্গির মাধ্যমে নিজের জাত চেনাতে পেরেছিলেন তিনি। তাঁর লেখা তাঁকে করে তুলেছিল অন্যদের চেয়ে আলাদা, স্বতন্ত্র। এমনকি মহানবীর মহান বীর অনুসারীরাও বুঝে গিয়েছিল, এই ছেলের ভেতরে আগুন আছে, যা ইছলামের আরোপিত মেকি সৌন্দর্য ঝলসে দিয়ে প্রকৃত কদর্য রূপটি প্রকাশ করতে শুরু করেছে।

যুক্তি-বুদ্ধি দিয়ে মোকাবিলার সামর্থ্য ও ক্ষমতা ইছলামীদের নেই। ক্ষুরধার যুক্তির কাপুরুষোচিত উত্তর ধারালো চাপাতির মাধ্যমে দিয়ে তারা অভ্যস্ত। আর সেটাই তারা করেছে দু'বছর আগে এই দিনে। যদিও দুই হত্যাকারী ধরা পড়েছে ঘটনাস্থলেই, তবু এই এক বছরে বিচারকার্যের কোনও অগ্রগতি হয়েছে বলে খবর পাওয়া যায়নি। এর একমাত্র কারণ - কর্তৃপক্ষের সদিচ্ছার অভাব। মদিনা সনদ অনুযায়ী পরিচালিত দেশের সরকারটি এখন দেশজুড়ে মসজিদ-মাদ্রাসার প্রসারে (পড়ুন, ইছলামী উগ্রবাদের প্রসারে) অন্তপ্রাণ, হেফাজতলেহন ও মোল্লাতোষণকে তা গ্রহণ করেছে রাষ্ট্রীয় নীতি হিসেবে। 

ধর্মকারীতে ওয়াশিকুর বাবুর লেখা পোস্টের সংখ্যা শতাধিক। তিনি লিখতেন দু'টি ছদ্মনামে - "অ বিষ শ্বাসী" ও "ধর্মবিদ দেশী"। এই ইবুকে সংকলিত করা হয়েছে সব ক'টিই। তাঁর "ফাল দিয়া ওঠা কথা" ও "নাস্তিকদের কটূক্তির দাঁতভাঙা জবাব" নামের সিরিজ দুটো এবং স্বতন্ত্রভাবে প্রকাশিত লেখাগুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এই ইবুকে। এবং তা নির্মাণের সর্বময় কৃতিত্ব নরসুন্দর মানুষ-এর, যিনি আমার অপরিমেয় অন্যায় আব্দারগুলোও যে কীভাবে সহাস্য সহ্য করেন, তা আল্যাও জানে বলে মনে হয় না।

ফরম্যাট: পিডিএফ
সাইজ: ১.৩ মেগাবাইট
ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ): https://goo.gl/kkt2tZ
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স): https://goo.gl/CZ1irx

(অনলাইনে লভ্য সমস্ত বাংলা কুফরী কিতাব এক জায়গায়এই ঠিকানায়)

অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শনও এমবেড করা হলো নিচে:

বুধবার, ১৫ মার্চ, ২০১৭

আরজ আলী মাতুব্বর: অনুমান

প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি থাকলেই কি কাউকে শিক্ষিত বলা উচিত, যদি সে মুক্তচিন্তা করতে না পারে? পাঠ্যপুস্তক পড়ে পরীক্ষা দিয়ে পাশ করাটাই কি শিক্ষিত হবার পরিচায়ক? যুক্তি-প্রমাণহীন কোনও বিশ্বাস ভেঙে যাবে বলে প্রশ্ন করতে ভীত শিক্ষিত ব্যক্তির শিক্ষার মূল্য কতোটা? নিজের ধারণার পরিপন্থী কোনও সত্যকে অস্বীকার করা ব্যক্তিকে সুশিক্ষিত বলা যাবে কি, যদি তার থেকে থাকে সর্বোচ্চ প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাও? 

আরজ আলী মাতুব্বর - প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাহীন, তবে স্বশিক্ষিত, সুশিক্ষিত ও কুসংস্কারমুক্ত ছিলেন বলে মুক্তচিন্তা করতে পারতেন। ধর্মীয় রীতিনীতি ও কুসংস্কার বিষয়ে যতো প্রশ্ন এসেছে তাঁর যুক্তিমনস্ক মস্তিষ্কে, তিনি সেসবের উত্তর খুঁজেছেন, বিশ্লেষণ করেছেন, প্রচ্ছন্ন সরস কটাক্ষ করেছেন। তিনি তাঁর লব্ধ জ্ঞান ও নিজস্ব অনুসন্ধিৎসু বুদ্ধিবৃত্তির অপূর্ব সমন্বয় ঘটিয়ে রচনা করেছেন কয়েকটি বই। তাঁর ভাষাজ্ঞান, রসবোধ রীতিমতো ঈর্ষাজাগানিয়া। 

বাংলাদেশের এই দার্শনিক ও চিন্তাবিদ আরজ আলী মাতুব্বরের মৃত্যুদিবস আজ। এ উপলক্ষে তাঁর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ রচনা "অনুমান"-এর ইবুক প্রকাশ করা হচ্ছে আধুনিকতম অবয়বে। বইটির বিভিন্ন অনলাইন ভার্শন বহু বছর ধরে লভ্য হলেও সেটির সবচেয়ে সুদর্শন, সবচেয়ে ঝকঝকে এবং সবচেয়ে দৃষ্টিসুখকর ইবুক ভার্শন প্রকাশ করে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করাই ছিলো আমাদের উদ্দেশ্য। "নরসুন্দর মানুষ" নামের এক অমানুষ বইটি ইউনিকোডে টাইপ করে হাইলাইট করেছেন বিশেষ অংশগুলো এবং বানিয়েছেন অনিন্দ্যসুন্দর ইবুকটিও। মূল বইয়ে আরজ আলী মাতুব্বর-এর নিজের আঁকা সাদা-কালো কাভারটির চমৎকার "কাভার ভার্শন" করে "কবি" বানিয়েছেন প্রচ্ছদ।

বইটির শেষে "সমাপ্তি" শিরোনামে তিনি লিখেছেন তাঁর জীবনের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস। পড়তে গিয়ে কখনও হাহাকার জেগে ওঠে বুকে, শ্রদ্ধায় মাথা নুয়ে আসে, গর্ব হয়, প্রেরণা সঞ্চারিত হয় মনে। কয়েকটি ছোট্ট উদ্ধৃতি:
বর্তমানে আমার বয়স প্রায় ৮৩ বছর। কাজেই আজ আমি যে ‘সমাপ্তি নিবন্ধটি লিখছি, তা বাহ্যত এ পুস্তিকাখানার সমাপ্তি হলেও মূলত আমার জীবনেরও সমাপ্তি। তাই আমার জীবননাট্য সম্বন্ধে কিঞ্চিৎ আলোচনা করছি।...
... ১৩৩৯ সালে আমার মা মারা গেলে আমি আমার মৃত মায়ের ফটো তুলেছিলাম। আমার মাকে দাফন করার উদ্দেশ্যে যে সমস্ত মুন্সী, মৌলভী ও মুছল্লিরা এসেছিলেন, ‘ফটো তোলা হারাম’ বলে তারা আমার মা'র নামাজে জানাজা ও দাফন করা ত্যাগ করে লাশ ফেলে চলে যান। অগত্যা কতিপয় অমুছল্লি নিয়ে জানাজা ছাড়াই আমার মা'কে সৃষ্টিকর্তার হাতে সোপর্দ করতে হয় কবরে। ধমীয় দৃষ্টিতে ছবি তোলা দূষণীয় হলেও সে দোষে দোষী স্বয়ং আমিই, আমার মা নন। তথাপি কেন যে আমার মায়ের অবমাননা করা হলো, তা ভেবে না পেয়ে আমি বিমূঢ় হয়ে মার শিয়রে দাড়িয়ে তাঁর বিদেহী আত্মাকে উদ্দেশ্য করে এই বলে সেদিন প্রতিজ্ঞা করেছিলাম, “মা, আজীবন ছিলে তুমি ধর্মের একনিষ্ঠ সাধিকা। আর আজ সেই ধর্মের নামেই হলে তুমি শেয়াল-কুকুরের ভক্ষ্য। সমাজে বিরাজ করছে এখন ধর্মের নামে অসংখ্য অন্ধবিশ্বাস ও কুসংস্কার। তুমি আমায় আশীৰ্বাদ করো – আমার জীবনের ব্রত হয় যেনো কুসংস্কার ও অন্ধবিশ্বাস দূরীকরণ অভিযান। আর সে অভিযান সার্থক করে আমি যেনো তোমার কাছে আসতে পারি।”...
... ১৩৫৮ সালে ‘সত্যের সন্ধান’-এ আমার যে বাজনা শুরু হয়েছিলো, ১৩৯০ সালে ‘অনুমান’-এ তার সন্ধ্যা-বিরতি, হয়তোবা সমাপ্তি।
কিন্তু –
এসে       জীবনের সন্ধ্যাবেলা,
দেখি       এ জেহাদ নয়, খেলা।
যদি        আবহাওয়া থাকে ভালো,
তবে       নিশীথেও চলবে খেলা,
 থাকবে যতোক্ষণ আলো।
এ এমন এক বই, যেটা পড়া না থাকলে অতিঅবশ্যপাঠ্য। এমনকি পড়া থাকলেও বারবার পাঠে বিরক্তি জাগে না একবিন্দু, ম্লান হয় না মুগ্ধতা।

ফরম্যাট: পিডিএফ
সাইজ: ১.১ মেগাবাইট
ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ): https://goo.gl/kUqp5N
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স): https://goo.gl/ZU5bfQ

অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শনও এমবেড করা হলো নিচে:

রবিবার, ৫ মার্চ, ২০১৭

গোলাপ মাহমুদ: ইসলামের অজানা অধ্যায় (চতুর্থ খণ্ড - মুহাম্মদের ব্যক্তিমানস জীবনী: মদিনায় মুহাম্মদ - তিন)

ইছলামের প্রকৃত ও বিশদ ইতিহাস এবং নবী মুহাম্মদের জীবনী, চরিত্র ও মনস্তত্ব সম্পর্কে জানতে হলে পরিশ্রমী গবেষক ও সুলেখক গোলাপ মাহমুদ -এর নিবিড় নিষ্ঠা ও অবিশ্বাস্য অধ্যাবসায়ের ফসল এই ইবুক-সিরিজটি আপনাকে পড়তেই হবে। দীর্ঘ এই রচনাটি সম্পূর্ণভাবে আদি ও মূল ইছলামী তথ্যসূত্রনির্ভর। এতে উল্লেখিত প্রতিটি ঘটনা ও তথ্য সম্পূর্ণভাবে নির্ভরযোগ্য এবং স্বীকৃত ইছলামী দলিলের মাধ্যমে সমর্থিত - একটি তথ্যও মনগড়া, অমূলক ও ভিত্তিহীন নয়। নবীচরিতের এমন নিখুঁত, গভীর ও এতো বিস্তারিত বিশ্লেষণ বাংলা ভাষায় আগে কখনও করা হয়েছে বলে মনে হয় না।

"ইসলামের অজানা অধ্যায়"-এর চতুর্থ খণ্ড আজ প্রকাশ করা হচ্ছে। এতে "মুহাম্মদের ব্যক্তিমানস জীবনী"-র চতুর্থ পর্ব "মদিনায় মুহাম্মদ - তিন" অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ইছলামের ইতিহাসের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় হুদাইবিয়া চুক্তি, খায়বার যুদ্ধ, ফাদাক আগ্রাসন ও ওয়াদি আল-কুরা হামলার কাহিনী সন্নিবেশিত হয়েছে এই খণ্ডে।

অনিন্দ্যসুন্দর এই ইবুকের বিপুল শ্রমসাপেক্ষ নির্মাণকর্মের সম্পূর্ণ কৃতিত্ব নরসুন্দর মানুষ-এর। প্রচ্ছদও তাঁরই বানানো।

আর হ্যাঁ, ধর্মকারী ব্লগে গোলাপের গবেষণা-সিরিজটির ধারাবাহিক প্রকাশ অব্যাহত থাকছে এবং পাশাপাশি বর্তমান ইবুকের পরবর্তী খণ্ডও আলোর মুখ দেখবে যথাসময়ে। অনন্যসাধারণ এই কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত আছে বলে ধর্মকারী অহংকার করতেই পারে।

----------

ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
পৃষ্ঠাসংখ্যা: ৫৪৩
সাইজ: ৪.৮ মেগাবাইট

ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ): https://goo.gl/txLJZ7
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স): https://goo.gl/cU4vur

(অনলাইনে লভ্য সমস্ত বাংলা কুফরী কিতাব এক জায়গায়এই ঠিকানায়)

ইবুকটির অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন নিচে এমবেড করা হলো।

শনিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

আবুল কাশেম: উম হানি ও মুহাম্মদ (ইসলামের মহানবীর প্রথম ভালবাসা)

ভূমিকা থেকে:
উম হানি এবং নবী মুহাম্মদের মাঝে পরকীয়া প্রেমের বিষয়ে আলোকপাত করা অত্যন্ত জটিল এবং বিপজ্জনক। জটিল এই কারণে যে, উম হানির ব্যাপারে আধুনিক ইসলামী পণ্ডিতেরা কোনো কিছুই জানাতে চান না। কারণ নবীর জীবনের এই অধ্যায় তেমন আনন্দদায়ক নয়। নবীর শিশু-স্ত্রী আয়েশা, পালকপুত্রের স্ত্রী যয়নবের সাথে নবীর বিবাহ, এবং আরও অন্যান্য নারীদের সাথে নবীর যৌন এবং অযৌন সম্পর্কের ব্যাপার আজ আমরা বেশ ভালভাবেই জানতে পারি। তা সম্ভব হয়েছে আন্তর্জালের অবাধ শক্তির জন্যে। আজকাল এই সব নিয়ে প্রচুর লেখালেখি হচ্ছে এবং আমরা নবীর জীবনের অনেক অপ্রকাশিত অন্ধকার দিকগুলি অবলোকন করতে পারছি। কিন্তু উম হানির সাথে যে নবী আজীবন পরকীয়া প্রেম করে গেছেন—অগনিত স্ত্রী ও যৌনদাসী থাকা সত্ত্বেও—তা নিয়ে আজ পর্যন্ত তেমন উল্লেখযোগ্য কোনো প্রবন্ধ লেখা হয়নি। 
উম হানি ছিলেন নবী মুহাম্মদের প্রথম এবং আজীবন প্রেম। ধরা যায়, নবী উম হানিকে মনঃপ্রাণ দিয়ে ভালবাসতেন এবং কোনোদিন এক মুহূর্তের জন্য উম হানিকে ভোলেননি। ইসলামের নির্ভরযোগ্য প্রাচীন ও মৌলিক উৎস ঘেঁটে এই রচনা লেখা হয়েছে, যাতে নবী জীবনের এই উপাখ্যান দীর্ঘ জানা যায়। যেহেতু উম হানির জীবন এবং নবীর সাথে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে কোনো ইসলামী পণ্ডিত ইচ্ছাকৃতভাবেই তেমন মাথা ঘামাননি, তাই অনেক কিছুই অনুমান করে নিতে হয়েছে। জোরালো হাদিস এবং প্রাথমিক জীবনীকারদের থেকে জানা তথ্যই এই অনুমানের ভিত্তি। এই রচনাতে নবী মুহাম্মদের পরকীয়া প্রেমের অনেক প্রশ্নের উত্তর পাঠকেরা হয়ত পাবেন।
ইছলামের নবীর জীবনের এই অধ্যায়টি নিয়ে বাংলা ভাষায় এতো গভীর গবেষণাসমৃদ্ধ রচনা আর লেখা হয়নি। আর এই কাজটি করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ও কিংবদন্তিতুল্য ইছলাম-গবেষক এবং কোরান, হাদিস ও ইছলামের ইতিহাস সম্পর্কে অগাধ পাণ্ডিত্যের অধিকারী আবুল কাশেম। 

এই ইবুকের পরিকল্পনা, বিন্যাস, প্রচ্ছদ ও নির্মাণ নরসুন্দর মানুষ-এর।

ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
সাইজ: ১.১ মেগাবাইট মাত্র

ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ)
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স)

নিচে অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন:

সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলামে নারীর অবস্থা

ডিসক্লেইমার:

অনলাইনে লভ্য নাস্তিকতা সম্পর্কিত সমস্ত বাংলা বইকে এক স্থানে একত্রিত করাই আমাদের লক্ষ্য। শুধুমাত্র প্রচার ছাড়া কোনও ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ বা উদ্দেশ্য আমাদের নেই। তবু কপিরাইট বিষয়ক কোনও অভিযোগ পেলে বইটি আমরা সরিয়ে নেবো।

এই বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত।


ফরম্যাট: পিডিএফ
সাইজ: ২৩.৩ মেগাবাইট

ডাউনলোড লিংক (মিডিয়াফায়ার)

বুধবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

থাবা বাবা: থাবার থাবড়া (দ্বিতীয় সংস্করণ)


ঠিক চার বছর আগে এই দিনে ইছলামের মহানবীর মহান বীর কিছু অনুসারী অশেষ ছওয়াব হাছিলপূর্বক তাদের বেহেশতগমন নিশ্চিত করে ফেলেছে থাবা বাবার মতো এক বেদ্বীন, কাফের, মুশরিক, নাস্তিককে হত্যা করার মতো ফরজ ও সুন্নত কর্মটি সাধন করে। এবং দেশের বিপুল সংখ্যক মুছলিম এই হত্যাকাণ্ডে উচ্চকণ্ঠ বা নীরব সমর্থন জানিয়ে প্রকাশ্য করেছে তাদের মনে পুষে রাখা বর্বরতা। অবশ্য "লেখার কারণে মানুষহত্যা যায়েজ" - এমন শিক্ষায় তাদের দীক্ষিত করেছে ইছলাম ধর্ম। নবীজি নিজেই তার জীবনে এমন উদাহরণ স্থাপন করে গেছে কয়েকটি।

"থাবা বাবা" ছদ্মনামের আড়ালে সরল কিন্তু স্পষ্টবক্তা, সরস কিন্তু প্রয়োজনে শ্লেষাত্মক এবং বিচিত্র বিষয়ে ঈর্ষণীয় জ্ঞানের অধিকারী কিন্তু নিরহংকারী এই মানুষটিকে তাঁর পরিচিত গণ্ডির অনেকে খুব পছন্দ করতো, তবে বাকিদের চক্ষুশূল ছিলেন তিনি তাঁর অকপট স্পষ্টবাদিতার কারণে। 

চার বছর ধরে থাবা বাবা নেই, তবে তাঁর লেখাগুলো থেকে যাবে চিরকালই। "থাবার থাবড়া" নামে একটি ইবুক প্রকাশ করা হয়েছিল তিন বছর আগে। তবে বর্তমান সংস্করণটি কিছুটা পরিবর্ধিত তো বটেই এবং তা সাজানোও হয়েছে ভিন্ন ধরনে। ধর্মকারীতে প্রকাশিত থাবা বাবার সমস্ত লেখা (প্রবন্ধ, গল্প, ছড়া, রম্য রচনা), তাঁর বানানো ও অনূদিত সব পোস্টার ও কার্টুন সংকলিত হয়েছে এখানে।

এই ইবুকের পরিকল্পনা, বিন্যাস ও নির্মাণ নরসুন্দর মানুষ-এর। প্রচ্ছদ বানিয়েছেন কবি

ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
সাইজ: ২.৫ মেগাবাইট মাত্র

ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ)
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স)

নিচে অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন:

শুক্রবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭

নরসুন্দর মানুষ: কোরানে জিহাদ ও আক্রমণের আহ্বান

"জিহাদ" শব্দটি শুনলে কি আপনার মানসচক্ষে ভেসে ওঠে শান্তিপূর্ণ উপায়ে ইছলামের প্রচার, প্রসার ও প্রতিষ্ঠার কথা? মুছলিমদের অন্তরে যা-ই থাক, অন্তত মুখে তারা সে কথাই বলে। বাস্তবতাটা আসলে কী? শুধু কোরান ও তার ছহীহ তাফসির থেকে এই উত্তর খুঁজেছেন নরসুন্দর মানুষ। বইটির প্রচ্ছদ ও নির্মাণ-কৃতিত্বও তাঁরই।


ইছলাম বিষয়ে অগাধ জ্ঞানের অধিকারী তিনি। ধর্মকারীতে চলমান তাঁর দুটো সিরিজ ও তাঁর লেখা ইবুকগুলোই সেই প্রমাণ দেবে। বাংলা ভাষার খ্যাতিমান ইছলাম-গবেষকদের কাতারে তিনি ঠাঁই করে নিচ্ছেন, এ নিয়ে কোনও সংশয় অন্তত আমার নেই।

বর্তমান ইবুকের ভূমিকায় তিনি লিখেছেন:
সংবাদপত্রে দেখতে পাই মাঝে মধ্যেই 'নিষিদ্ধ জিহাদী বই-পত্র উদ্ধার’! মনে প্রশ্ন জাগে, জিহাদী বই কী কী? ইসলাম ধর্মের মূল গ্রন্থ কোরান কি জিহাদী বই-পত্রের মধ্যে গণ্য? যদি তা না হয়, তবে তা কেন, আর যদি হয় তাই বা কেন?...
জিহাদ নিয়ে কী বলে কোরান? জিহাদ কি কেবলই মনের ময়লার বিরুদ্ধে, নাকি যুদ্ধ বলতে যা আমরা বুঝি (আক্রমণ, হত্যা, লুন্ঠন, দখল, মানুষ বিক্রি, দাসী গ্রহণ, যুদ্ধনারী ভোগ); জিহাদ তাই? ...
এসবের উত্তর খোঁজার চেষ্টা হয়েছে এ ইবুকটিতে; আমি চেষ্টা করেছি কোরানে প্রাপ্ত সকল যুদ্ধ (জিহাদ) ও আক্রমণ সংক্রান্ত আয়াত তুলে আনতে; আর যেহেতু আমি নিরপেক্ষতা অবলম্বন করেছি, তাই নিজের মনগড়া কোনো ব্যাখ্যা যোগ করিনি; কারণ কিছুতেই আমি প্রভাবিত করতে চাই না পাঠককে; পাঠক নিজ দায়িত্বে সিদ্ধান্ত নেবে, কোরানকে কি জিহাদী গ্রন্থ বলা চলে?
ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
সাইজ: ১.৭ মেগাবাইট মাত্র
ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ): https://goo.gl/RuKIUW
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স): https://goo.gl/IOkKCO

(অনলাইনে লভ্য সমস্ত বাংলা কুফরী কিতাব এক জায়গায়, এই ঠিকানায়)

নিচে অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন:

শুক্রবার, ২০ জানুয়ারী, ২০১৭

নরসুন্দর মানুষ: জঙ্গিনামা - ৩

 প্রত্যেক মুছলিমের জন্য ফরজ করা হয়েছে জিহাদ নামের ইছলামী বর্বরতা। অনেক ভণ্ড মুছলিম জিহাদকে কোমল ও সুমিষ্ট মোড়কে উপস্থাপন করতে চাইলেও বাস্তবতা একেবারেই ভিন্ন। সেই মুছলিমদের প্রতারণার জাঙ্গিয়া-নামানো জবাব দেয়া হয়েছে জঙ্গিনামা নামের অভিনব এই ইবুকে।

➜ জিহাদ দ্বারা কিভাবে ফিৎনা ফ্যাসাদ নির্মূল করা সম্ভব অথচ জিহাদ করতে গেলে তো ব্যাপক রক্তপাত হয়, অসংখ্য মানুষের প্রাণনাশ ঘটে?
➜ মুসলমানদের উপর জিহাদের হুকুম কী? অনেকেই তো জিহাদ পছন্দ করে না, বা জিহাদ করতে চায় না।
➜ কোন কোন লোকদের সাথে আমাদের জিহাদ করতে হবে?
➜ কাফির মুশরিকদের বিরুদ্ধে এ ধরনের জিহাদ আমাদেরকে কতদিন পর্যন্ত চালিয়ে যাতে হবে?
➜ আমরা তো দেখি যে, কাফির-মুশরিকরাই ধন-দৌলতের প্রাচুর্যের মধ্যে আরামে আছে। আর আমাদেরকে আল্লাহ্‌ তা'আলা যদি সত্যিই ভালোবাসেন, তাহলে কাফির-মুশরিকদের মতো আমাদের এতো ধন-দৌলত নেই কেন?
➜ আমাদেরকে সর্বদা এ ধরনের প্রস্তুত হয়ে থাকতে হবে কেন? আর কেনই বা সর্বদা সাথে অস্ত্র রাখতে হবে?
➜ যদি নিজেদের বাপ, ভাইদের মধ্য থেকে কেউ কাফের হয় বা ঈমানের তুলনায় কুফরকে বেশি পছন্দ করে, তাহলে তাদেরকেও কি অভিভাবক রূপে গ্রহণ করা যাবে না?
➜ জিহাদ ছাড়ার কারণে আমাদের উপর যেই শাস্তি আসবে, তার ধরনটা কী রকম হবে? তা কি শুধু আখিরাতেই আসবে, নাকি দুনিয়াতেও আসবে?
➜ জিহাদ না করলে আমরা কি জান্নাতেও যেতে পারবো না?
➜ জিহাদের কথা বললে তো অনেকেই অব্যাহতি চায়, বিভিন্ন ওজর দেখায়, যারা এ ধরনের কার্যকলাপে লিপ্ত, তাদের ঈমান কোন পর্যায়ের?

এমন ১০০টি প্রশ্নের উত্তর দেয়া হয়েছে শুধু কোরানের আয়াত উদ্ধৃত করে। এ বিষয়ে নিচের কথাগুলো বলেছেন বইটির সংকলক, অনুবাদক, প্রচ্ছদশিল্পী ও নির্মাণকারী নরসুন্দর মানুষ

এই ইবুক সিরিজটির প্রথম খণ্ড পাঠের পর যেসব মুসলিমদের রেফারেন্স-রেফারেন্স (তথ্যসূত্র-তথ্যসূত্র) বলে চিৎকার ছিলো, তাদের মাথায় ঠাণ্ডা পানি ঢালতেই প্রথম খণ্ডের তাফসীর (ব্যাখ্যা) হিসেবে দ্বিতীয় খণ্ডের জন্ম দেয়া হয়! 

কিন্তু অতি সম্প্রতি পৃথিবীতে কিছু নতুন জাতের মুসলিম জন্মেছে, যাদের বলা হয় 'কোরান অনলি' (শুধু কোরান মানি) মুসলিম। এই উদ্ভট ধরনের মুসলিমদের প্রশ্নের জবাব দিতে; এই খণ্ডে সরাসরি কোরানকেই তাদের মুখোমুখি বসিয়ে দেওয়া হলো; যেহেতু এটি 'কোরান' ও 'শুধু কোরান মানি' মুসলিমের মধ্যে একটি কথোপকথনমূলক ইবুক, তাই পাঠক কোরানের ভাষাতেই পেয়ে যাবেন ইসলামে জিহাদের প্রয়োজনীয়তা এবং ইসলাম ধর্মের আসল চরিত্রের দিক-নির্দেশনা!

এই খণ্ডটিকে আমরা জঙ্গিবাদের তুরুপের তাস বলে বিবেচনা করছি!

ফরম্যাট: পিডিএফ (সম্পূর্ণভাবে মোবাইলবান্ধব)
সাইজ: ৯৯০ কিলোবাইট মাত্র
ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ)
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স)

নিচে অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন:

মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০১৭

শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলামের ভূমিকা ও সমাজ উন্নয়নের সমস্যা

ডিসক্লেইমার:

অনলাইনে লভ্য নাস্তিকতা সম্পর্কিত সমস্ত বাংলা বইকে এক স্থানে একত্রিত করাই আমাদের লক্ষ্য। শুধুমাত্র প্রচার ছাড়া কোনও ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ বা উদ্দেশ্য আমাদের নেই। তবু কপিরাইট বিষয়ক কোনও অভিযোগ পেলে বইটি আমরা সরিয়ে নেবো।

এই বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত।


ফরম্যাট: পিডিএফ
সাইজ: ০.৬ মেগাবাইট

ডাউনলোড লিংক (মিডিয়াফায়ার)

বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী, ২০১৭

শামসুজ্জোহা মানিক: ইসলাম ও আধুনিক সভ্যতা

ডিসক্লেইমার: 

অনলাইনে লভ্য নাস্তিকতা সম্পর্কিত সমস্ত বাংলা বইকে এক স্থানে একত্রিত করাই আমাদের লক্ষ্য। শুধুমাত্র প্রচার ছাড়া কোনও ধরনের ব্যবসায়িক স্বার্থ বা উদ্দেশ্য আমাদের নেই। তবু কপিরাইট বিষয়ক কোনও অভিযোগ পেলে বইটি আমরা সরিয়ে নেবো। 

এই বইটি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত।


ফরম্যাট: পিডিএফ
সাইজ: ০.৫ মেগাবাইট

ডাউনলোড লিংক (মিডিয়াফায়ার)

শনিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০১৭

আবুল কাশেম: ইসলামে বর্বরতা - নারী অধ্যায়

ইছলাম নারীকে দিয়েছে অপরিমেয় মর্যাদা ও সর্বোচ্চ সম্মান - এমন গালভরা দাবি করতে ইছলামবাজেরা অক্লান্ত।

এবং হাজার বছরের বিরামহীন প্রচারণা ও নিরন্তর মগজধোলাইয়ের ফলাফল হয়েছে এই যে, মুছলিম পুরুষেরা তো বটেই, অধিকাংশ মুছলিম নারীও এই বাগাড়ম্বরে বিশ্বাস করে।

"ইসলামে বর্বরতা: নারী অধ্যায়" - নামের এই বইয়ে সম্পূর্ণভাবে স্বীকৃত ইছলামী দলিল-দস্তাবেজ ও ছহীহ তথ্যসূত্র থেকে উদ্ধৃতির পর উদ্ধৃতি দিয়ে এই মিথ মিথ্যা প্রমাণ করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ও কিংবদন্তিতুল্য ইছলাম-গবেষক এবং কোরান, হাদিস ও ইছলামের ইতিহাস সম্পর্কে অগাধ পাণ্ডিত্যের অধিকারী আবুল কাশেম। 

এই ইবুক বানিয়ে দিয়েছেন 'নিখিল বাংলাদেশ ইবুক প্রিন্টিং প্রেস'-এর স্বত্বাধিকারী নরসুন্দর মানুষ। প্রচ্ছদও তাঁরই করা।

প্রকৃত ইছলাম সম্পর্কে জানতে হলে এই বইটি পড়তেই হবে।

ফরম্যাট: পিডিএফ
পৃষ্ঠাসংখ্যা: ১০৩
সাইজ: ১.১ মেগাবাইট

ডাউনলোড লিংক (গুগল ড্রাইভ)
ডাউনলোড লিংক (ড্রপবক্স)

নিচে অনলাইনে পাঠযোগ্য ভার্শন: